মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে

এক নজরে

নারীর মর্যাদা ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় এবং নারীর সার্বিক উন্নয়নে মাঠ পর্যায়ে সরকারের বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ধীন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর দেশের ৬৪টি জেলা এবং জেলাধীন উপজেলায় সরকার কর্তৃক গৃহীত নারী উন্নয়ন সংক্রান্ত বিভিন্ন কার্যক্রম/কর্মসূচির মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে মহিলাদের  আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে ।তন্মধ্যে মানব সম্পদ উন্নয়ন, আত্মকর্মসংস্থান, দারিদ্র বিমোচন ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি, আর্থ-সামাজিক সুরক্ষা, নারী ও শিশু নির্যাতন এবং পাচার প্রতিরোধ, প্রাতিষ্ঠানিক সুবিধা ও সেবা প্রদান, সচেতনতা বৃদ্ধি এবং জেন্ডার সমতামূলক কার্যক্রম অন্যতম। এ সকল কার্যক্রমের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে নারীকে উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত করে ইতিবাচক পরিবর্তন আনায়নে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ভূমিকা অপরিসীম।

একটি দেশের সুষম ও স্থায়ীত্বশীল আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে নারীর অংশগ্রহণ অপরিহার্য। দেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। এই বিশাল জনগোষ্ঠিকে উন্নয়নের মুল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত করতে এবং তাদের সম্ভাবনা এবং কর্মদক্ষতাকে উৎপাদনমূখী কাজে লাগাতে না পারলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। এ বিবেচনায় মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর বিভিন্ন উন্নয়নমূলক উদ্যোগ বাস্তবায়ন করছে । মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর রাষ্ট্রের সাংবিধানিক অঙ্গীকার, জেন্ডার সমতা ভিত্তিক সমাজ বিনির্মানে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে। দরিদ্র মহিলাদের সংগঠিত করে অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করে সাবলম্বি হিসবে গড়ে তোলা। কর্মজীবি নারীদের জন্য হোষ্টেল কর্মসূচি, কর্মজীবি নারীদের শিশুদের জন্য শিশুদিবাযত্ন কর্মসূচি, নারীর দারিদ্রতা দূরীকরণে ক্ষুদ্রঋণ বিতরণ, দুস্থঃ মহিলাদের খাদ্যনিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ভিজিডি কর্মসূচি, প্রশিক্ষনের মাধ্যমে দক্ষতা উন্নয়ন, নারীর আর্থ-সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকল্পে উদ্যোক্তা উন্নয়ন, দরিদ্র মা’র জন্য মাতৃত্বকাল ভাতা, কর্মসূচি ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল, যৌতুক ও নারী নির্যাতন এবং বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, নারীর আইনী সহায়তা প্রদান ইত্যাদির মাধ্যমে নারীর ক্ষমতায়নের পথ সুগম করা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের অন্যতম দায়িত্ব। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর মাঠ পর্যায়ে ৬৪টি জেলা এবং জেলাধীন ৪৮৩টি উপজেলায় নারী উন্নয়নে এ সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। ঝালকাঠি জেলার কার্য্ক্রম ১৯৯৮ সাল থেকে চলমান আছে। জেলাধীন ৩ (তিন) টি উপজেলায় কার্যক্রম চলছে। ঝালকাঠি সদর উপজেলার কার্যক্রম জেলা অফিসের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে ।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter